M Mechatronics Engineering -এই নাম শুনে খুব কম মানুষই আছেন যারা বিস্ময় প্রকাশ করেন না।
    Mechatronics কি? নাম শুনেই একটু ধারনা করা যায় এটা দুইটি শব্দ Mechanical এন্ড Electrical এর সমন্বয়ক, কিন্তু Mechatronics শুধুমাত্র Mechanical এবং Electrical এর সমন্বয়ক নয় এটা আসলে যন্ত্রের সাথে মানুষের সমন্বয়। বলা যেতে পারে Mechatronics Engineering branch এর সেই এরিয়া যেখানে সাইন্সফিকশন বাস্তব রুপলাভ করে।
উইকিপিডিয়া অনুসারে – Mechatronics is a multidisciplinary field of science that includes a combination of mechanical engineering, electronics,computer engineering, telecommunications engineering, systems engineering and control engineering. অতএব বুঝতেই পারছেন Mechatronics কে কেন আমি মানুষ ও যন্ত্রের সমন্বয়কারী বলে আখ্যায়িত করলাম!  আপনার যদি Robotics, Automation ভালো লাগে, আপনি যদি রোবোটকে প্রান দিতে চান তাহলে Mechatronics এর বিকল্প নেই।
      আসুন দেখে নেই  Mechatronics এ কি পড়ানো হয় –

১) মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং,

২) ইলেক্ট্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং,

৩) কন্ট্রোল সিস্টেম ,

৪) কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ,

৫) পিএলসি (প্রোগ্রামেবল লজিক কন্ট্রোল), মাইক্রোকন্ট্রোলার, রোবোটিক্স,

৬) অপ্টোমেকানিজম, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং, মাইক্রো ইলেক্ট্রো মেকানিক্যাল সিস্টেম,

৭) ক্যাড ও ক্যাম ডিজাইন ইত্যাদি ।

তো বুঝতেই পারছেন Mechatronics তাদের জন্য যাদের সবই পড়ার ইচ্ছা।
অ্যাপ্লিকেশানঃ
খালি পড়লে তো হবে না, কিছু কাজ করতে হবে। যেমন,

১. রোবটিক্স এবং অটোমোটিভ ইঞ্জিনিয়ারিং

২. কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত মেশিন

৩. অটোমোবাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, স্মার্ট ভিয়েকল ডিসাইন

৪. বায়ো-মেকানিক্যাল সিস্টেম, সাইবর্গ

৫. আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স

6. মোবাইল ফোন অ্যাপ্লিকেশন

৭. স্মার্ট সিকিউরিটি সিস্টেম

৮. ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং ইত্যাদি।

এখন আসুন আমরা এর জব সেক্টর এর দিকে তাকাই,
   জব সেক্টরে যাওয়ার আগে আমি একটা কথা বলবো – All the existing fields of engineering represents what we are except Mechatronics is the only field of engineering which represents what we will be.
জব সেক্টর এর কথা বলতে গেলে অনেকেই বলবে এটার বাংলাদেশে  ভাত নাই, যাই হোক তাদের জন্য আমি বলতে চাই, বাংলাদেশে ভাত না থাকলে Authority নিশ্চয় অনেক বোকা যে তারা শুধু শুধু এত টাকা এক জন Mechatronics Engineering এর স্টুডেন্টের পিছনে ঢালবেন। বাংলাদেশ Mechatronics Engineer নেই বলে Mechatronics Engineer দের ফিল্ড EEE, CSE এবং ME engineer রা ধরে রেখেছেন। বিদেশে scholarship এর জন্য Mechatronics এর তাৎপর্য অনেক, বিশেষ করে জাপান, জার্মান, আমেরিকার মত দেশে।  তাছাড়া –
১) মাইক্রো কন্ট্রোলিং বেসড বেশ কিছু কোম্পানী আছে বাংলাদেশে যেখানে দরকার মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ার।
২) যে সকল ইন্ড্রাস্টিতে অটোমেটিক কন্ট্রোল এর ব্যাপার গুলো আছে।
৩) এছাড়া মেকানিক্যাল, ইলেক্ট্রিক্যাল আর সিএসইর রিলেটেড ফিল্ড তো থাকছেই।
সেই সাথে উচ্চশিক্ষার জন্য তোমার সামনে খুলে যাচ্ছে মেকাট্রনিক্স এর বিশাল দুয়ার। কারন বিদেশের নামী দামী ইউনিভার্সিটি গুলোতে মেকাট্রনিক্স এর উপর বেশ কিছু কাজ হয়ে থাকে। তাছাড়া সবচেয়ে বড় কথা, মেকাট্রনিক্স পড়লে তুমি হবা এই দেশের প্রথম প্রজন্মের মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ার। বাংলাদেশে পাব্লিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে ২০১৩ সালে সর্বপ্রথম RUET এ Mechatronics সাব্জেক্টটা পড়ানো শুরু করা হয় এর পর ঢাকা ইউনিভারসিটি (MRE – Mechatronics and Robotics Engineering) ও CUET এ (MIE – Mechatronics & Industrial Engineering) Mechatronics সাব্জেক্টটি পড়ানো হয়।
         পরিশেষে একটা কথাই বলবো – নতুন কিছু করতে চাইলে, Robotics, automation এ interest থাকলে এবং যন্ত্রকে আরো মানুষের Friendly করতে চাইলে তোমাকে Mechatronics এর দুনিয়ায় স্বাগতম।

Writer,

Syed Shahid Ahamed Hasib
  RUET, MTE ’16

Leave a comment

Your email address will not be published.