আজকে আমাদের আলোচনা কিছু যৌগ নিয়ে, যাদের নামের শেষে/শুরুতে “সোডা” শব্দটি বিদ্যমান।

 

তার আগে আমাদের জানতে “সোডা” শব্দটি কোথা থেকে এসেছে? সোডা শব্দটি এসেছে সোডিয়াম থেকে!

 

1.সোডা অ্যাশ(Soda Ash)/Na2CO3:

এখানে অ্যাশ/Ash দিয়ে ছাই বুঝানো হয়েছে। ঘটনা হচ্ছে বহুপূর্বে সোডিয়াম সমৃদ্ধ উদ্ভিদের কাঠ পুড়িয়ে প্রাপ্ত ছাই ছিল মূলত সোডিয়াম কার্বনেট।

 

2.বেকিং সোডা(Baking Soda)/NaHCO3:

এখানে বেকিং(Baking) দিয়ে ফোলানো বুঝানো হয়। কেক, পাউরুটি ইত্যাদি ফোলাতে ইস্ট(Yeast) এর সাথে সোডিয়াম বাই কার্বনেট/সোডিয়াম হাইড্রোজেন কার্বনেটকে মিশানো হয়।

 

3.কস্টিক সোডা(Caustic Soda)/NaOH:

এখানে কস্টিক(Caustic) বলতে ক্ষয়কারী বুঝানো হয়েছে। ঘটনা হচ্ছে সোডিয়াম হাইড্রোক্সাইডের ক্ষয়কারী বৈশিষ্ট্য আছে।

 

4.সোডা লাই(Soda Lye)/NaOH:

এখানে লাই(Lye) দিয়ে ক্ষারজাতীয় পদার্থ বুঝানো হয়েছে।

 

 

5.সোডা লাইম(Soda Lime)/NaOH+CaO:

CaO এর ইংরেজি নাম কুইক লাইম(Quick Lime), আর বাংলাতে হচ্ছে শুষ্ক চুন তাই NaOH এবং CaO এর মিশ্রণটির নাম হয়েছে- NaOH হতে সোডা আর CaO হতে লাইমসোডা লাইম

 

6.সোডা লাইম(Soda Lime)/NaOH+Ca(OH)2:

এখানে Ca(OH)2 এর ইংরেজি নাম স্ল্যাকেড লাইম(Slaked Lime), আর বাংলাতে হচ্ছে আর্দ্র চুনশুষ্ক চুন(CaO) + পানি(H2O) Ca(OH)2 ।তাই এই মিশ্রণের নাম-ও… সোডা লাইম

 

7.সোডা ওয়াটার(Soda Water)/Carbonated Water:

সোডিয়াম কার্বনেট সমৃদ্ধ পানিকে কার্বনেট মিশ্রিত পানি/কার্বনেটেড ওয়াটার/সোডা ওয়াটার বলা হয়।

 

8.সোডা কাচ(Soda Glass)/সোডা লাইম কাচ(Soda Lime Glass)/(Na2O+ CaO/Ca(OH)2+SiO2):

কাচ তৈরীর অত্যাবশকীয় উপাদান হচ্ছে SiO2(সিলিকা)  

আর সোডা লাইম কাঁচের জন্য Na2O এবং CaO/Ca(OH)2 প্রয়োজন। তার মানে হচ্ছে…(Na2O+ CaO/Ca(OH)2+SiO2) এই মিশ্রণটি সোডা লাইম কাচ।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.